তুলতুলে নরম, কোমল, দীপ্তিময় ত্বকের জন্য তরল দুধের অত্যন্ত কার্যকরী মিশ্রণ

সুস্বাস্থ্যের জন্য তরল দুধের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে আমাদের সকলেরই জানা। সুস্বাস্থ্যের পাশাপাশি আমাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য অর্থাৎ ত্বকের যত্নে ও তরল দুধ যে কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা হয়তো অনেকেই জানেন না। হ্যাঁ বন্ধুরা তরল দুধে রয়েছে এমন কিছু অনন্য প্রাকৃতিক পুষ্টিগুণ যা আমাদের সৌন্দর্যকে শত গুণ বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। বিশেষ করে ত্বক কে তুলতুলে নরম, দীপ্তিময়, উজ্জ্বল এবং লাবণ্যময় করে তুলতে তরল দুধ অত্যন্ত উপকারী। তাই সুপ্রিয় বন্ধুরা আপনাদের জন্য শেয়ার করছি তরল দুধের অত্যন্ত কার্যকরী কিছু মিশ্রন যা ব্যবহারে আপনাদের ত্বক  দ্রুত সময়ে কোমল, নরম, মসৃণ ও দীপ্তিময় হয়ে উঠবে। তাহলে চলুন বন্ধুরা দেখে নেয়া যাক দীপ্তিময়ী, কোমল, মসৃণ ত্বকের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী কিছু তরল দুধের মিশ্রণ এবং তার বিস্তারিত ব্যবহার পদ্ধতি।

তুলতুলে নরম, কোমল, দীপ্তিময় ত্বকের জন্য। তরল দুধের অত্যন্ত কার্যকরী মিশ্রণ সমূহঃ

তরল দুধে রয়েছে  প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, জিংক, কপার,  ফসফরাস এবং প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, এ, বি১, বি২,বি১৫ ইত্যাদি । এসব পুষ্টি উপাদান আমাদের ত্বকের কোষে শক্তি যোগায় ফলে ত্বক হয়ে ওঠে গভীর থেকে উজ্জ্বল, ফর্সা, নরম , মসৃণ এবং দীপ্তিময়।

তরল দুধ এবং চালের গুড়ার মিশ্রণঃ

উপকরণ সমূহঃ

2 টেবিল চামচ তরল দুধ।

2 চা চামচ চালের গুঁড়া।

আধা চা-চামচ কাঁচা হলুদের গুড়া।

1 চা চামচ মধু।

মিশ্রণ টি তৈরির প্রক্রিয়াঃ

একটি পরিষ্কার পাত্রে কাঁচা তরল দুধ নিয়ে সবগুলো উপকরণ পরিমাণ মতো নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে।

তাহলেই তৈরি হবে ত্বক কে তুলতুলে নরম, কোমল ও দীপ্তিময়ী করে তোলার অত্যন্ত কার্যকরী তরল দুধের একটি মিশ্রণ।

কোমল ও দীপ্তিময়ী ত্বকের জন্য তরল দুধের মিশ্রন ব্যবহারের প্রক্রিয়াঃ

প্রথমে কাঁচা তরল দুধ অথবা গোলাপ জল দিয়ে মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন।

পরিষ্কার তুলা অথবা কাপড়ের সাহায্যে সম্পূর্ণ মুখে স্ক্রাব করে তরল দুধের মিশ্রণটি লাগিয়ে নিন।

5 থেকে 7 মিনিট ঘষে ঘষে আলতো ভাবে সম্পূর্ণ মুখে ম্যাসাজ করুন।

20 থেকে 25 মিনিট মিশ্রণটি শুকানোর সময় দিন।

সম্পূর্ণ শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম জলে তুলা ভিজিয়ে ঘষে ঘষে মিশ্রণটি তুলে নিন।

সবশেষে পরিষ্কার ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ভালো ভাবে ধুয়ে নিন।

দিপ্তীময়ী ত্বক পেতে তরল দুধের মিশ্রণটি ব্যবহারের উপকারিতাঃ

ত্বক গভীর থেকে তুলতুলে নরম, কোমল ও দীপ্তিময় হয়ে উঠে।

নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক দুধে আলতা রং ধারণ করে।

ত্বকের মৃত কোষ সমূহ দূর করে।

ত্বকের বিভিন্ন ধরনের দাগ, বলিরেখা, বুড়িয়ে যাওয়া ভাব, পোড়া দাগ সম্পূর্ণরূপে দূর করে।

বিঃদ্রঃ

তরল দুধের মিশ্রণে ব্যবহৃত কোন উপকরণ আপনার ত্বকের জন্য এলার্জিক হলে তা ব্যবহার করবেন না।

মিশ্রন ত্বকে ম্যাসাজ করার সময় অতিরিক্ত প্রেসার দিবেন না।

তরল দুধের মিশ্রন ত্বকে লাগিয়ে রোদ, গরম স্থান এবং ধুলাবালি যুক্ত স্থান সম্পূর্ণ পরিহার করুন।

মিশ্রন ব্যবহারের পর অবশ্যই আপনার ত্বক উপযুক্ত ময়েশ্চারাইজার ক্রিম দিয়ে ময়েশ্চারাইজ করে নিবেন।

যে কেউ ঘরে বসে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি তরল দুধের মিশ্রন গুলো কে ব্যবহার করে উজ্জ্বল, দীপ্তিময়, তুলতুলে নরম ত্বকের অধিকারী হয়ে উঠতে পারবেন। স্থায়ীভাবে দিপ্তীময়ী, নরম এবং কোমল ত্বক  প্রাপ্তির জন্য সপ্তাহে অন্তত দুবার তরল দুধের মিশ্রন গুলোর ব্যবহার করুন